Select Page

শরীরটা আপনার, যেখানে ইচ্ছা সেখানেই স্পর্শ করতে পারেন। তাই না? কিন্তু জানেন কি, নিজের শরীরের কোন স্থানে স্পর্শ করার আগে হাত ধুয়ে নেয়া কতটা জরুরী? শরীরের এমন কিছু অঙ্গ আছে যেখানে কেবল আমরা নিজেরাই স্পর্শ করি। এমন কিছু স্পর্শকাতর অঙ্গ আছে যেখানে খুব বেশী স্পর্শ করা ঠিক নয় আর আর করলেও খুবই সাবধানে। কিন্তু আমরা সবাই কি সেসব মেনে চলি? মানি না! দিনের মাঝে কতবার নিজের মুখে বা নাকে হাত আমরা? জানেন কি, আপনার এই ঘনঘন মুখে হাত দেয়ার কারণেই যখন তখন খারাপ হচ্ছে আপনার স্বাস্থ্য? চলুন, জেনে রাখি শরীরের কোথায় হাত না ধুয়ে স্পর্শ করা ঠিক নয় এবং কেন? কেবল নিজের শরীর নয়, যে কারো শরীরের ক্ষেত্রে, বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে এগুলো অবশ্য পালনীয়। তাহলে আপনার শিশুর সাস্থ্য থাকবে নিরাপদ আর আপনি থাকবেন নিশ্চিন্ত ।

 

অঙ্গ স্পর্শ করার পূর্বে হাত ধুয়ে নেয়া baby

আসুন জেনে নেই কোন কোন স্পর্শ-কাতর অঙ্গ স্পর্শ করার পূর্বে হাত ধুয়ে নেয়া জরুরী

 

মুখমন্ডল

মুখ ধোয়া থেকে শুরু করে ক্রিম লাগানো পর্যন্ত নানান কারণে মুখে হাত দিতেই হয়। কিন্তু এসব ছাড়া অকারণে মুখে হাত একদমই দেবেন না। মুখ ধোয়া বা ক্রিম লাগানোর আগেও হাত ভালো করে ধুয়ে তারপরই মুখে স্পর্শ করান। নোংরা হাতেমুখ স্পর্শ করা থেকে কেবল ব্রণই নয়, ত্বকের আরও নানান রকম অসুখ হতে পারে।

 

চোখ

লেন্স পরা ছাড়া অন্য কোন কাজে চোখে হাত দেবেন না মোটেও। লেন্স পরতে হলেও হাত খুব ভালো করে ধুয়ে নিয়ে তবেই লেন্স পরবেন। একটু অবহেলার কারণে চোখ দুটির মারাত্মক ক্ষতি করে বসতে পারেন।

 

মুখ

হাত না ধুয়ে মুখে হাত বা হাতের আঙ্গুল প্রবেশ করলে ডা  য়রিয়া থেকে শুরু করে মুখ ও পেটের নানান রকমের অসুখ হতে পারে। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য যে খুব কম মানুষই মুখে হাত দেয়ার আগে প্রতিবার বার হাত ধুয়ে নেন । বেশিরভাগ মানুষই ব্যাপারটা খুবই অবহেলা করেন।

 

নাক

নাকের ময়লাই তো পরিষ্কার করবেন, হাত ধুয়ে নেয়ার দরকার কি? দরকার অবশ্যই আছে। এই স্পর্শ কাতর অঙ্গ খুব সহজেই জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে। সবচাইতে ভালো হয় কটনবাড দিয়ে নাক পরিষ্কার করলে।

 

কান

কানের মত অতি সংবেদনশীল একটি অঙ্গ স্পর্শ করার পূর্বে হাত ধুয়ে নেয়া হবে সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ। কান পরিষ্কারের জন্য কটন বাড ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে। সামান্য অসতর্কতা মারাত্মক বিপদ দেকে আনতে পারে।

 

মল-মুত্র ত্যাগ করার স্থান

ভাবছেন এসব স্থান দিয়ে তো শরীরের বর্জ্যই বের হয়, তাহলে এসব  অঙ্গ স্পর্শ করার পূর্বে হাত ধুয়ে নেয়া কেন প্রয়োজন? প্রয়োজনীয়তা আছে কারণ এসব স্থান খুব সহজেই সংক্রামণের শিকার হয়। আপনার হাতে লেগে থাকে রোগ-জীবাণু, যেগুলো হাতের মাধ্যমে এসব স্থানে পৌঁছে নানা রকম রোগ ব্যধি তৈরি করে।

 

তাই শরীরের সমস্ত নাজুক সব অঙ্গ স্পর্শ করার পূর্বে হাত ধুয়ে নেয়া প্রত্যেকের অবশ্য কর্তব্য । এতে করে আপনার অসুস্থ হবার প্রবণতা কমে যাবে অনেকাংশে । আর বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে খুবই সতর্কতা অবলম্বন করবেন । যাতে আপনার সোনামনির জীবন হয় সুন্দর ও সাস্থ্য সমৃদ্ধ ।

 

আরো পড়ুন:

৪ টি কার্য্যকরী ওজন কমানোর ডায়েট চার্ট – দ্রুত শরীরের ওজন কমান

গুরুত্বপূর্ণ বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ও সচেতনতা দিবস সমুহের এর তালিকা

হেপাটাইটিস বি এর লক্ষণ সমূহ ও হেপাটাইটিস বি হলে করনীয় – আরো অনেক কিছু

Show Buttons
Hide Buttons